নাইম আইটি https://www.nayemit.com/2022/07/cryptocurrency.html

২০২২ সালের সেরা ক্রিপ্টোকারেন্সি খাত সমুহ

আপনি কি এই ২০২২ সালে সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে ডিজিটাল কারেন্সি বিনিয়োগের চিন্তা করছেন? তবে আপনার অবশ্যই ক্রিপ্টোকারেন্সিস সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে এবং সেরা খাতটা বাছাই করে নিতে হবে। 
ক্রিপ্টোকারেন্সি
কোন ক্রিপ্টোকারেন্সি খাত বেশি লাভজনক ও ঝুঁকিমুক্ত তা বেছে নিতে আমাদের আজকের এই ফিচার। ক্রিপ্টোকারেন্সি সম্পর্কে জানতে এখানে ক্লিক করুন।

লাভজনক ও জনপ্রিয় Cryptocurrencies

সেই ২০০৯ সালে বিটকয়েনের হাত ধরে শুরু হওয়া ক্রিপ্টোকারেন্সির পথ আজ শুধু Bitcoin এই থেমে নেই।প্রায় ৪,৫০০ টি ডিজিটাল কারেন্সি, বিটকয়েনের পাশাপাশি cryptocurrency'র শাখাকে উন্নত ও  লাভজনক বিনিয়োগ হিসেবে তুলে ধরছে। যদি ২০২২ সালে ক্রিপ্টোর বাজারে বিনিয়োগের চিন্তা করেন, তবে পোস্টটি আপনার জন্য বেশি উপকারি।ক্রিপ্টোর সকল আপডেট খবরে এবং কৌশলে আপনার অবস্থান টপ এ থাকুক চান,তবে পোস্টের শেষ পর্যন্ত সাথে থাকুন।

সেরা Cryptocurrency বাছাইয়ে জটিলতা

যুগের বিবর্তনে সকল কাজে টেকনোলজির ব্যবহার বেশ বেড়েছে। ব্যবসা-বিনিয়োগের  ক্ষেত্রেও প্রযুক্তির ব্যবহার পিছিয়ে নেয়। ক্রিপ্টোকারেন্সি, প্রযুক্তির সফল আরেক ব্যবহার। তবে যারা এই ডিজিটাল মুদ্রা ধারনায় নতুন, তাদের জন্য বেস্ট বিনিয়োগ সেক্টর কোনটা হবে তা বেছে নিতে বেগ পেতে হয়। তাদের এই ডিজিটাল বিনিয়োগ ব্যবস্থা জটিল মনে হবে। তাই এই পোস্টে আপনাদের ২০২২ এর সেরা ক্রিপ্টোকারেন্সি কোন গুলো? এবং কিভাবে ঝামেলা ছাড়ায় এই ক্রিপ্টো কারেন্সি খাত গুলো লাভজনক ভাবে নির্বাচন করবেন তা জানাবো। 

তো পাঠক, কেনা বেচার ক্ষেত্রে তুলনামূলক উচ্চ রেঙ্কে থাকা  ক্রিপ্টোকারেন্সি খুঁজে পেতে পোস্টটি পড়তে থাকুন। 

২০২২ সালে টপ ক্রিপ্টোকারেন্সি খাত

২০২২ সালে ডিজিটাল মুদ্রার প্রসার যেমন ঘটছে তেমনি মুদ্রার ধরনও বাড়ছে। বর্তমানে অসংখ্য ক্রিপ্টোকারেন্সি অপশন পাওয়া যায়। বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নিরাপদ সিস্টেম হলেও ক্রিপ্টোকারেন্সি ঠিকঠাক রূপ নিতে, অনেক বিকল্প কয়েন আনতে দশকেরও বেশি বছর সময় লেগেছে। এতসব মুদ্রার বাজারজাত হওয়ার কারনে,কোন এক বছরের তুলনামূলক ratio দেখে আপনি বিনিয়োগ করে ফেলতে পারেন না। তা নিতান্তই অদূরদর্শিতার প্রমাণ।

আমি আপনাদের ব্যাপারটা বুঝিয়ে বলি, ক্রিপ্টো এলগরিদম সিস্টেমে প্রতি নিয়ত যোজন বিয়োজন ঘটে। যেহেতু এখানে কোন তৃতীয় পক্ষ থাকে না তাই বিষয় টাকে ঘোলাটে করতে ক্রিপ্টো কারেন্সি ইন্ডাস্ট্রি তাদের বিনিয়োগকারি হিসাব, স্টক, এক্সচেঞ্জ, মুনাফা, ইনফ্রাস্টাকচার ইত্যাদি শিফট করে। বিশেষত যেখানে বর্তমানে বহুজনে একই বিষয়ে বিনিয়োগ করতে চেষ্টা করছে। তাই যেকোনো সময় কোন কয়েন বা মুদ্রার মান একদিনে টপ রাইজ করতে পারে! আবার পরের দিন গায়েবও হয়ে যেতে পারে! 

তাই এই সিস্টেমের এলগম ও জটিল চেইন সম্পর্কে নিয়মিত ধারণা থাকতে হবে। ২০২২ সালের মূল ধারার আবেদনের প্রেক্ষিতে এবং মূল্য বৃদ্ধি সম্ভাবনার ভিত্তিতে আমরা সেরা ক্রিপ্টোকারেন্সি বিনিয়োগের প্রকল্প গুলি তালিকাভুক্ত করছি। আসুন প্রত্যেকটি ক্রিপ্টোকারেন্সিকে আলাদা ভাবে দেখে নেয়া যাক। কেন এরা মূল্যবান সম্পদ। 
  • Etherium (ETH)
  • ApeCoin
  • Bitcoin(BTC)
  • Uniswap
  • Solana (SOL)
  • Binance Coin (BNB)Solana (SOL)
  • DogecoinLitecoin (LTC)

ইথেরিয়াম   

ইথেরিয়াম ও বিটকয়েন হল ২০২২ সালে বিনিয়োগ করার মত সেরা ক্রিপ্টোকারেন্সি। প্রায় বেশিরভাগ ক্রিপ্টোকারেন্সি প্রকল্পে ইথেরিয়াম ব্লকচেইন ব্যবহার করা হয়।আমার দেখা সব মিমস কয়েন এবং  মেটাভার্স প্রকল্পে এই ইথেরিয়াম ব্লকচেইন দেখছি। তাই, ক্রিপ্টোর বাজারে বিনিয়োগ করতে চাইলে ইথেরিয়ামকে বিবেচনায় নিতে পারেন। 

এপিকয়েন 

২০২২ সালে বিনিয়োগ করার জন্য আরেকটি শীর্ষ ক্রিপ্টোকারেন্সি হল এপিকয়েন। এই মুদ্রাটি বিনিয়োগের জন্য সেরা cryptocoins গুলোর মধ্যে একটি। এটি ১০,০০০ টোকেন (NFTs) দ্বারা নন ফান্ডেবল প্লাটফর্ম । এটি গেমিং কয়েন দ্বারা চালু হয়েছিলো। 

বিটকয়েন

এই ক্রিপ্টো কারেন্সি সেক্টরে আপনি যদি নতুন হয়ে থাকেন তবে বিটকয়েন হতে পারে এই মুহূর্তে বিনিয়োগ করার জন্য সবচেয়ে কম মূল্যের ক্রিপ্টো কারেন্সি। এটি ডি ফ্যাক্ট ক্রিপ্টো। বর্তমান বাজার মূলধন হিসাব করলে বিট কয়েন হল সবচেয়ে মূল্যবান কারেন্সি। আপনাকে এটি বেছে নেয়ার পরামর্শ  এ কারনে করছি, সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিপ্টো কারেন্সিতে অনেক কম লোকসান হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। 

বিন্যান্স কয়েন

বিএনবি বা বিন্যান্স কয়েন হল ২০২২ সালে নজরে রাখার মত আরেকটি ক্রিপ্টোকারেন্সি। ট্রেডিং বা ব্যবসার উঠা-নামা ব্যাল্যান্স এবং ব্যবহারকারীর সংখ্যা ভিত্তিতে বর্তমানে বিন্যান্স হল বিশ্বের বৃহত্তম ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ। বিএনবি ক্রিপ্টো তে আরেকটি সুবিধা আছে, তাদের নিজস্ব ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ পদ্ধতি আছে, যা এই কারেন্সি ব্যবহারকারীদের কম কমিশনে ব্যবহার করতে দেয়।

Uniswap (অদলবদল)

আপনি আপনার বিবেচনার লিস্টে আরো একটি ক্রিপ্টো কারেন্সি ধারণা রাখতে পারেন, তা হলো  Uniswap। যেহেতু কোনো কেন্দ্রীয় মাধ্যম ছাড়াই ডিজিটাল মুদ্রার কার্যক্রম সাজানো, তাই ক্রিপ্টো বাজারে Uniswap কয়েনও ভালো আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। যার ফলস্বরূপ ২০২২ সালের প্রথমদিকে Uniswap এর বাজারদর ছিলো $৫.`৭০ বিলিয়ন। 

সোলানা (SOL) 

এই এসওএল হলো ক্রিপ্টো নেটওয়ার্কের নেটিভ কারেন্সি। যা সমস্ত লেনদেন নিজেরাই তত্ত্বাবধান করে। এটি এমন কার্যক্রম যারা ওপেন সোর্স প্রকল্প প্রণয়ন করে যা ব্লকচেইন প্রযুক্তি ব্যবহার করে।

Dogecoin

২০২২ সালে বেশি আলোচনায় না আসলেও Dogecoin হলো ঊর্ধ্বমুখী সম্ভাবনার জন্য বিনিয়োগের সেরা ক্রিপ্টো কারেন্সি। ২০২১ সালে এটি সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিপ্টো কারেন্সির একটি ছিল। বিশেষ করে এলন মাস্ক যখন এটি সম্পর্কে প্রায় টুইট করতো, যা এই মেম মুদ্রাকে বিশাল আয় অর্জনে সহায়তা করেছে। এটির মাইনিং খুব তাড়াতাড়ি ঘটে। 

Litecoin

এটি ২০১১ সালে চার্লস লি প্রকাশ করেছিলো, যিনি আগে একজন গুগল কর্মচারী ছিলেন। এটি সমকক্ষ থেকে সমকক্ষ ক্রিপ্টো যা ওপেন সোর্স সফটওয়্যার এর অধিনে চলে। 

এছাড়াও ফেয়ারকয়েন, ড্যাশ, পিয়ারকয়েন, রিপল, মনেরো ইত্যাদির মতো বেশ কয়েক ধরনের ক্রিপ্টো কারেন্সির প্রসার ঘটছে। 

পরিশেষ - সেরা ক্রিপ্টোকারেন্সি খাত সমুহ  

আজকে এই পোস্টে আপনাদের সেরা কয়েকটি ক্রিপ্টো সম্পর্কে ধারণা দিলাম। তবে বলা বাহুল্য যে, আপনি বিনিয়োগের মন স্থির করলে অবশ্যই মার্কেট প্লেসে কোন কারেন্সির ডিমান্ড কেমন তা ভাল ভাবে আয়ত্তে নিয়ে ক্রিপ্টো কারেন্সিতে ব্যয় করবেন,এ পরামর্শ দিচ্ছি। 

আমি আশা করি, ২০২২ সালের জন্য দীর্ঘমেয়াদী ক্রিপ্টো কারেন্সির বিভাগসমুহ সম্পর্কে আপনাদের কিছুটা ধারণা দিতে পেরেছি।  

পোস্টটি আপনি পড়ুন, ফ্রেন্ডস এবং ফ্যামিলিতে শেয়ার করুন।

শেয়ার করলে মিষ্টি পাবেন

0 জন কমেন্ট করেছেন

Please read our Comment Policy before commenting. ??

পটেনশিয়াল আইটি কী?